প্রয়াত অটল বিহারী বাজপেয়ী, শোকাহত পুরো দেশ, এক যুগের অবসান বললেন মোদি


নিউজ ওয়ার্ল্ড বাংলা, নয়াদিল্লি: চলে গেলেন ভারতের প্রাপ্তন প্রধানমন্ত্রী শ্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী উনার মৃত্যুতে শোকাহত পুরো দেশ। ১৬ই অগাস্ট বৃহস্পতিবার, বিকেল ৫টা বেজে ৫ মিনিটে প্রয়াত হয়েছেন তিনি। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স ছিল ৯৩ বছর। 

দীর্ঘদিন ধরেই বার্ধক্যজনিত অসুখে ভুগছিলেন অটল বিহারী বাজপেয়ী। ৯ সপ্তাহ ধরে এইমস-এ চিকিত্সাধীন ছিলেন তিনি। মঙ্গলবার থেকে তাঁর শারীরিক পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়। ফুসফুস ও অন্ত্রে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে। 

ডায়াবেটিসে আক্রান্ত বাজপেয়ীর একটি কিডনি দীর্ঘদিন ধরেই বিকল। শুধুমাত্র একটি কিডনি কাজ করছিল। এই পরিস্থিতিতে চিকিত্সা পরিস্থিতি আরও জটিল হয়ে ওঠে। তবে চেষ্টার কোনও কসুর বাকি রাখেননি চিকিত্সকরা কিন্তু শেষমেষ উনার শরীর আর সঙ্গ না দেওয়ায় একশ একোত্রিশ কোটি ভারতবাসীকে ছেড়ে চলে যেতে হয় উনাকে। 

জন্ম ১৯২৪ সালে। মধ‍্যপ্রদেশের গোয়ালিয়রে। বাবা কৃষ্ণবিহারী বাজপেয়ী ছিলেন স্কুলশিক্ষক এবং কবি। ১৫ বছর বয়সে রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘে যোগ দেন। ১৯৪৩ সালে আরএসএসের প্রচারক হন। ১৯৫৭ সালে প্রথমবারের জন্য সংসদে পা। উত্তরপ্রদেশের বলরামপুর লোকসভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত হন। তারপর বারবার। লোকসভায় ১০ বার, রাজ‍্যসভায় ২ বার । ২০০৯ সাল পর্যন্ত তিনি ছিলেন লখনউয়ের সাংসদ।

১৯৭৭ সালে মোরারজি সরকারের বিদেশমন্ত্রী হন বাজপেয়ী। বিদেশমন্ত্রী হিসেবে তিনিই রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভায় প্রথম হিন্দিতে বক্তৃতা দিয়েছিলেন। ১৯৯৬ সালে তাঁর প্রধানমন্ত্রিত্ব টেঁকে মাত্র ১৩ দিন। এরপর ১৯৯৮ সালে আবার দিল্লির মসনদে। সেবার তেরো মাসের জন্য। ১৯৯৯ সালে তৃতীয়বারের জন্য প্রধানমন্ত্রী হন অটলবিহারী বাজপেয়ী।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ