বিজেপি-র জন্য আজীবন একনিষ্ঠ ভাবে কাজ করতে চান শিল্পী



আগরতলা: বাংলায় একটি লোকগান আছে -"যখন তুর কেউ ছিলো না তখন ছিলাম আমি"। গানের এই কলিটি অক্ষরে অক্ষরে মিলে যায় ত্রিপুরা প্রদেশ বি জে পি-র মহিলা মোর্চার অন্যতম এক সদস্যা শিল্পী বর্ধনের সঙ্গে। একটা সময় ছিলো যখন রাজ্যে বি জে পি-র এতো জৌলুস ছিলো না, তখন বিধানসভা হোক বা পুরসভা নির্বাচন সকল আসনের জন্য প্রার্থী পাওয়া সমস্যা ছিলো সেই সময় তিনি বি জে পি দলে যোগদান করেন। শুধু যোগদান করেই শেষ নয় কঠিন সময়ে নিরলস ভাবে দলের জন্য কাজ করেছেন বলে জানান তিনি।

দলও তাকে তার কাজের মূল্যায়ন করেছে তাই ২০১৫সালের আগরতলা পুরনিগমের নির্বাচনে প্রার্থী করে। যদিও তখন রাজ্যে বামেদের একচেটিয়া আধিপত্যের কারণে জয় পেয়ে দলের ও মহিলা মোর্চার জন্য আরো বেশী পরিষেবা সর্বোপরি মানুষের জন্য সেবা করতে পারেননি।


তবে তিনি দমবার পাত্রী নন। এখনো দল ও সংগঠনের জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। সাধারণ মিছিল হোক বা সাংঠনিক সভা মহিলা কর্মী সমর্থকদের উৎসাহ দিয়ে কর্মসূচী স্থলে নিয়ে আসা থেকে শুরু করে মিছিলের প্রথম সারিতে হেঁটে কাজ করেন। তাছাড়া দলের সাংগঠনিক কাজ বা রাজ্যের যে কোন জায়গায় সর্বভারতীয় নেতৃত্বের আগমন ঘটলে তিনি সেই সভাস্থলে ছুটে যান। সর্বভারতীয় নেতারা দলের কর্মী সমর্থকদের জন্য যে উপদেশ দিয়ে যান তা শিল্পী বাস্তবে পূরণ করার চেষ্টা করেন বলে জানান। দলীয় অফিসের কাজ থেকে দলের হয়ে ভোটের কাজ সব কিছুতেই তিন মনপ্রাণ দিয়ে কাজের চেষ্টা করেন বলেও জানান।

আগামী দিনেও তিনি একই ভাবে দলের জন্য কাজ করতে চান। এমনকি জীবনের শেষ দিনও বি জে পি-র হয়ে দেশের এবং মানুষের জন্য কাজ করতে চান। তিনি দলকে যে সম্মান ও মর্যাদার চোখে দেখেন তেমনি দলও তাকে ততটা সম্মানের চোখে দেখছে এবং যোগ্য সম্মানীয় কাজে লাগাবে বলেও তার আশা।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ