Spread the love

       করোনা সংক্রমণ ও লকডাউন এর জেরে আমেরিকায় আটকে পড়েছেন কয়েক হাজার ভারতীয়। তাদের মধ্যে রয়েছেন প্রচুর পড়ুয়া। কিন্তু আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা বন্ধ থাকায়,তাই দেশে ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছে তারা। আর্থিক অবস্থা দিন দিন খারাপ হচ্ছে তাদের ফলে সেখানে থাকা মুশকিল হয়ে উঠছে তাদের জন্য।

শুধুমাত্র ইউষ্টনেই  আটকে রয়েছে ৩০হাজার পড়ুয়া। সেখানকার বড় বড় কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা সূত্রের তারা  গিয়েছিল সে দেশে।আটকে পড়া এক ছাত্র জানিয়েছে যদি এয়ার ইন্ডিয়া বিদেশ থেকে আটকে পড়া ভারতীয়দের ফিরিয়ে নিয়ে যেতে পারে, তাহলে সরকার কেন বেসরকারি বিমান সংস্থা গুলিকে  অনুমতি দিচ্ছে না।

দেশে ফেরার জন্য ইয়ার ইন্ডিয়া তরফে যে  টাকা চাওয়া হচ্ছে তা দেয়ার সামর্থ্য অনেকেরই নেই তার ফলে এমন অনেককে আছে যারা ফিরতে পারছে না। যাদের দেশে ফেরা সত্যিই খুব দরকার। ওভারসিজ সিটিজেন কার্ড নিয়ে নিউইয়র্কে ঢাকা আলিয়া নামের এক ছাত্রী জানিয়েছে ২৬ এপ্রিল মুম্বাইয়ে আমার বাবা মারা গিয়েছেন,মায়ের বয়স হয়েছে তাই আমার মুম্বাইয়ে জাওয় খুবই দরকার।

আমি বারবার ভারতীয় দূতাবাসে আবেদন করছি কিন্তু সেখান থেকে কোন উত্তর দেয়া হয়নি। এই সব অভিযোগের পরে সরকারের তরফে জানানো হয়েছে ভারতীয় দূতাবাস দিনরাত কাজ করছে। বিদেশে আটকে থাকা ভারতীয় মধ্যে যারা ক্যান্সার, অথবা অন্য কোন রোগে আক্রান্ত গর্ভবতী মহিলাদের সব রকমের সাহায্য করা হচ্ছে। প্রতিদিন ১০ হাজারের বেশি ইমেল আসছে।

সেইমতো আটকে পড়া মানুষদের সাহায্য করা হচ্ছে কিন্তু বিদেশে সব কিছু করার ক্ষমতা তাদের হাতে নেই তাই হয়তো কিছু ক্ষেত্রে সমস্যা হচ্ছে।এই অবস্থায় তাদের ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য সরকারের কাছে বারবার আবেদন করছে তারা কবে তাদের আবেদন ভারত সরকারের সাড়া দেবে সেই অপেক্ষায় দিন কাটছে পড়ুয়াদের। 

By Rajdeep

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *